শুক্রবার ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৫ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

যুক্তরাজ্যের বাজারে শ্রীমঙ্গলের লেবু

জানুয়ারি ৮, ২০১৮ | ৮:৪৪ পূর্বাহ্ণ

হৃদয় দেবনাথ, মৌলভীবাজার

ভোর হতে না হতেই শ্রীমঙ্গলের বাজারগুলো ভরে যায় লেবুতে। দেশের চাহিদা মিটিয়ে সেই লেবু রপ্তানি হয় যুক্তরাজ্যে। দীর্ঘ চার বছর বন্ধ থাকার পর আবারো যুক্তরাজ্যে রপ্তানি শুরু হয়েছে শ্রীমঙ্গলের লেবু। প্রতি মাসে রপ্তানি হচ্ছে প্রায় আট কোটি টাকা মূল্যের ৪০০ টন লেবু। বছরে অন্তত ৬০ কোটি টাকার লেবু কেনা-বেচা হচ্ছে।

শ্রীমঙ্গলে উৎপাদিত কাগজী লেবু ছাড়াও উন্নতমানের চায়না, জারা, এলাচি, সিডলেস লেবু রপ্তানি হয়। দেশের লেবুর চাহিদার ৭৫ শতাংশ পূরণ করে শ্রীমঙ্গল উপজেলার বিভিন্ন লেবুর বাগান। লাভজনক হওয়ায় চাষিরা আনারস চাষ বাদ দিয়ে লেবু চাষ করছেন।

বাগান মালিক আ ফ ম আবদুল হাই জানান, প্রতি বছরেই লন্ডনসহ মধ্যপ্রাচ্যে শ্রীমঙ্গলের কাগজী লেবু রপ্তানি হয়। লেবু ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদীন জানান, গত দুই দশক ধরে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন বাগানের লেবু যুক্তরাজ্যে রপ্তানি হচ্ছে। যুক্তরাজ্যে বসবাসকারী সিলেটিরাই এসব ফলের মূল ক্রেতা।

কিন্তু ২০০৮ সালে জুলাই মাসে যুক্তরাজ্যের সরকারি স্বাস্থ্য সংস্থা ‘ডিপার্টমেন্ট অফ এনভারয়নমেন্ট ফুড রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন (ডেফরা) হিথ্রো বিমানবন্দরে লেবু জাতীয় ফলের কোটি টাকার চালান আটকে দেয়। তাদের দাবি আমদানিকৃত ফলে ‘ক্যাংকার্স’ নামক ভাইরাস আছে। তবে সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগে যুক্তরাজ্য নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়।

জালালাবাদ ভেজিটেবল অ্যান্ড ফ্রোজেন ফিশ এক্সপোর্টার্স গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর আহমদ জানান, বর্তমানে শ্রীমঙ্গলসহ মৌলভীবাজারের কয়েকটি বাগান থেকে সংগৃহীত জারা লেবু ও আদা লেবু যুক্তরাজ্যে রপ্তানি হচ্ছে। তার মধ্যে শ্রীমঙ্গলের উৎপাদিত লেবুর চাহিদা ব্যাপক থাকায় বড় চালানটি এখান থেকেই যায়।’

তিনি আরও বলেন, প্রতি মাসে গড়ে আট কোটি টাকা মূল্যের ৪০০ টন লেবু রপ্তানি হচ্ছে। সিলেট থেকে বিমানে করে যুক্তরাজ্যে লেবু রপ্তানি করতে হয়। কিন্তু বিমানের সিলেট-লন্ডন ফ্লাইট বন্ধ থাকায় রপ্তানিকারকদের খরচ ও দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সিলেটের সব বাগান ভাইরাসমুক্ত ও বিমানের সিলেট-লন্ডন ফ্লাইট চালু করা গেলে রপ্তানির পরিমাণ অন্তত তিনগুণ বাড়বে।

শ্রীমঙ্গলের একাধিক লেবু চাষিদের সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় লেবু চাষের জন্য সেচ ব্যবস্থা খুবই ব্যয় বহুল। বৈদ্যুতিক নলকূপের মাধ্যমে সেচ কাজ চালানো হয়। বিদ্যুত ব্যয় হ্রাস করা গেলে যুক্তরাজ্যের পাশাপাশি বহির্বিশ্বেও রপ্তানি আরও বৃদ্ধি পাবে।

সারাবাংলা/এনএস/জেএফ

যুক্তরাজ্যের বাজারে শ্রীমঙ্গলের লেবু
যুক্তরাজ্যের বাজারে শ্রীমঙ্গলের লেবু
যুক্তরাজ্যের বাজারে শ্রীমঙ্গলের লেবু